পুলিশ অফিসার মনিরুলে বাড়ীতে শোকের মাতম

মার্চ ২৭, ২০১৭ ০৮:০৩:পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ী এলাকায় জঙ্গিদের বিস্ফোরিত বোমায় নিহত সিলেট সিটি এসবির পুলিশ পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) মনিরুল ইসলামের বাড়ী নোয়াখালীর সদর উপজেলার পূর্ব এওজবালিয়ায় চলছে শোকের মাতম। জঙ্গি হামলায় নিহত ৬ জনের মধ্যে মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে নিহত হন।

জানা গেছে, এওজবালিয়া ইউনিয়নের মন্নান নগর এলাকার বাসিন্দা মৃত নুরুল ইসলামের ৪ ছেলে ও ৩ মেয়ের মধ্যে পুলিশ পরিদর্শক মনির দ্বিতীয়। ২০০৩ সালে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন তিনি। পরে পদোন্নতি পেয়ে পুলিশ-পরিদর্শক হিসেবে সিলেটের সিটি এসবি শাখায় বদলি করা হন। পদোন্নতির পর থেকে তিনি ওইস্থানে কর্মরত ছিলেন। চাকুরিরত অবস্থায় তিনি ২০১০ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের সংসারে মোজাক্কেরুল ইসলাম ফরাবি নামের ১৭ মাসের ১ ছেলে রয়েছে ।

এদিকে, স্বামীর মৃত্যুর সংবাদে স্ত্রী পারভিন আক্তার হতবাক হয়ে পড়েছেন। বৃদ্ধ মাতা আমেনা খাতুন ছেলের শোকে বার-বার মুচ্ছা যাচ্ছেন।

নিহতের বড় ভাই সোহাগ জানান, গত শুক্রবার ছোট ভাই সাইফুল ইসলামের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে নোয়াখালীতে আসেন মনিরুল। বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে শনিবার ভোরে কর্মস্থলে যোগ দিতে বাড়ী থেকে যাত্রা করেন তিনি। বিকাল ৩টায় নিজ কর্মস্থল সিলেটে যোগদান করেন তিনি। সেখান থেকে মুঠোফোনে তার মা ও স্ত্রীকে জানিয়ে ছিলেন তোমরা আমার জন্য দোয়া করো। কর্মজীবনে বোমা বিস্ফোরক বিষয়ে আমেরিকায় গিয়ে এক বছরের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন মনিরুল। চাকুরিরত অবস্থায় বেশ প্রশংসিত হন এই পুলিশ পরিদর্শক।

রোববার দুপুর ২টায় সিলেটে জানাযা শেষে মনিরুলের মরদেহ নোয়াখালীতে আনা হবে। পরে নিহতের মৃতদেহ বাড়িতে পৌঁছলে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

Related Post