ড. রহীম একটি নাম

August 22, 2016 12:08:PM

ইমাম মোকাররম হোসাইন: কীর্তি মানের মৃত্যু নেই। ড.মাওলানা শাহ মোহাম্মদ আব্দুর রহীম। একটি নাম । একটি প্রতিষ্ঠান। একটি ইতিহাস। যিনি এনেছিলেন সাথে করে মৃত্যুহীন প্রাণ- মরনে তাই তিনি করে গেলেন দান।
মঙ্গল বার দুপুর ২ঘটিকার সময় কীর্তিমান এ মহা মানবের জানাযা বার্মিংহাম জামে মসজিদ এন্ড ইসলামিক সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে। ইউ,কে অবস্থানরত উনার শুভাকাঙ্খী ,আত্মীয় , স্ব -জন বন্ধু -বান্ধব উপস্থিত থেকে উনার বিদেহী আত্মার প্রতি সম্মান প্রদর্শণ পূর্বক বিদেহী আত্মা কে জান্নাতবাসী করার জন্য মহান রবের প্রতি অশ্রুসিক্ত প্রার্থনা করবেন।
উল্লেখ্য যে , জনাব মাওলানা আব্দুর রহীম সাহেব এর কর্মময় জীবন ছিল অনুজ দের জন্য অনুকরণীয় । যিনি ১৯৫৮,৬২,৬৪,৬৬ সালে যথাক্রমে দাখিল, আলিম ,ফাজিল ও কামিল পরীক্ষায় তৎকালীন পূর্ব পারিস্তান মাদ্রাসা বোর্ড হতে মোধা তালিকায় তালিকায় প্রথম স্থান অর্জন করেন। তিনি ১৯৬৭ সালে কুমিল্লা বোর্ড হতে এইচ এস সি পরীক্ষায় সম্মিলিত মোধাতালিকায় ৩য় স্থান অর্জন করেন ।পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে অর্থনীতি বিষয়ে অনার্স ও মাস্টার্স কৃতিত্বের সাথে সম্পন্ন করেন।জ্ঞান -বিজ্ঞানের প্রতি তার ছিল অগাধ আগ্রহ। তিনি উচ্চ শিক্ষার জন্য UK তে এসে যুক্তরাজ্যের গ্লাসগো ইউনিভার্সিটি হতে “ইসলামে ভূমি রাজস্ব ব্যাবস্থা”বিষয়ে পি এইচ ডি ডিগ্রী অর্জন করেন।
দেশ বিদেশে তিনি নানা বিধ সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি বার্মিংহাম জামে মসজিদ এন্ড ইসলামিক সেন্টারের প্রেসিডেন্ট, দারুল উলুম ইসলামিক হাইস্কুল এন্ড কলেজের প্রিন্সপাল, বাংলাদেশ ইসলামিক অর্গানাইজেশন -যুক্তরাজ্যের প্রেসিডেন্ট ,যুক্তরাজ্য ওলামা বোর্ডের প্রেসিডেন্ট,যুক্তরাজ্য শরীয়া কাউন্সিলের সদস্য,ইউরোপ ইসলামিক ফোরামের উপদেষ্টা , জামেয়া শরাফতিয়া ট্রাস্টের আমীর সহ তিনি বিভিন্ন দায়িত্ব দক্ষতার সহিত পালন করছেন।
বৃটিশ সমাজে মুসলমানদের নানাবিধ প্রতিকূল অবস্থা সত্ত্বেও তিনি ইসলামের শিক্ষা, সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলার জন্য সভা, সেমিনার, রেডিও বৃটেনে অনুস্ঠান সহ নানা প্রোগ্রাম আয়োজন করতেন।
জ্ঞান তাপস এ ব্যাক্তি জ্ঞান বিস্তারে নোয়াখালী ও চট্টগ্রামে দুটি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা ও পৃথিবীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন।
তিনি অর্থনীতি,রাজনীতি ও কোরআন হাদীস ভিত্তিক নানা বই রচনা করেন। তার রচিত বই এর সংখ্যা প্রায় ১০ টি।
ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন চার ছেলে এবং দু মেয়ের জনক। উনার সন্তানগণ স্ব- স্ব ক্ষেত্রে প্রতিস্ঠিত।
উনার আত্মীয়, স্বজন দের মাঝে উল্লেখযোগ্য হলেন, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট মামুন আব্দুল গাইউম, মালদ্বীপের বর্তমান পররাষ্ট্র মন্ত্রী, সৌদি রাজপরিবারের সদস্য গণ।
বিশ্ব প্রতিপালক এ মহান ব্যক্তির পাপ মোচন করে জান্নাতের সর্বোচ্চ মাক্বামে উনাকে অধিষ্ঠিত করুক এ হোক মোদের প্রার্থনা।

লেখক: গবেষক, রাজনৈতিক বিশ্লেষক

Related Post